টকশো দেখে ২ শিশুর জন্য মধ্যরাতে বসলো হাইকোর্ট

টকশো দেখে ২ শিশুর জন্য মধ্যরাতে বসলো হাইকোর্ট

বেসরকারি একটি টেলিভিশন চ্যানেলের টকশোতে দুটি শিশু নিয়ে আলোচনা হচ্ছিল। যাদেরকে তাদের চাচা বাসায় ঢুকতে দিচ্ছে না বলে অভিযোগ। কিছুদিন আগে তাদের বাবা মারা গিয়েছিলো। এই টকশোতে যুক্ত ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদও। এ টকশোটি হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি আবু তাহের মোহম্মদ সাইফুর রহমানের নজরে আসায় তিনি শনিবার দিনগত মধ্যরাতে স্বপ্রণোদিত হয়ে তাৎক্ষণিক আদেশ দেন।

পরে আইনজীবী মনজিল মোরসেদ জানান, রাত সাড়ে এগারোটার দিকে একাত্তর টিভির একাত্তর জার্নালে আমিও যুক্ত ছিলাম। সেখানে দুটি শিশু নিয়ে আলোচনা হচ্ছিল। ওই দুটি বাচ্চা সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল প্রয়াত ব্যারিস্টার কে এস নবীর নাতি। যাদের বাবা কিছুদিন আগে ইন্তেকাল করেছেন। এখন তাদের চাচা তাদেরকে বাসায় ঢুকতে দিচ্ছে না। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হওয়া টকশোটি হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি আবু তাহের মোহম্মদ সাইফুর রহমানের নজরে আসায় তিনি স্বপ্রণোদিত হয়ে তাৎক্ষণিক আদেশ দেন। আদেশে ওই দুই শিশুকে তাদের বাসায় নিরাপদে রেখে আসতে ধানমণ্ডি থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। আজ এ বিষয়ে প্রতিবেদনও দাখিল করবে ধানমণ্ডি থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে ধানমণ্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকরাম আলী মিয়া বলেন, আমরা খুব সুন্দর ভাবে দুই শিশুকে রাত দেড়টার দিকে তাদের বাসায় পৌঁছে দিয়ে এসেছি।

ব্যারিস্টর কে এস নবী (কাজী শহীদুন নবী) ১৯৯৬ থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত অ্যাটর্নি জেনারেল ছিলেন। ২০১৮ সালের ৮ জুলাই তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *